ব্যক্তি ও পরিবারের জন্য

সাইবার সিকিউরিটি » ব্যক্তি ও পরিবারের জন্য
ফোন হারিয়ে গেলে কি করবেন
→ ডি এস এ

কাজের সুবিধার জন্য আপনি হয়তো আপনার মোবাইলটি সাইলেন্ট করে রেখেছিলেন। এরপর অফিস থেকে ফেরার পথে কিংবা অফিসেই ফোনটি রেখে এসেছিলেন কিনা মনে করতে পারছেন না। এদিকে ফোনে কল করেও কোন রেসপন্স পাচ্ছেন না। এবং এক সময় আপনার ফোনটি সুইচ অফ দেখাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে আপনার ফোনটি হারিয়ে গেছে এমনটাই অনুমান করা স্বাভাবিক। আপনি হয়তো ভাবছেন আপনার ফোনে এত তথ্য রয়েছে আপনার কেউ যদি সেগুলো পেয়ে যায় তাহলে ক্ষতি হবে আপনার। কিন্তু আপনি চাইলে এখনো আপনার ফোনের হদিস করতে পারেন। এমনকি আপনার ফোনের ডাটাও মুছে ফেলতে পারেন।হারিয়ে যাওয়ার পরেও আপনার ফোনের অবস্থান বের করা, ফোনটি লক করা, এমনকি ফোনের ডাটা মুছে দেয়া এগুলো সব সম্ভব করার উপায় বের করেছে গুগল। এজন্য আপনার ফোনটি কখন হারাবে এর জন্য অপেক্ষা না করে গুগলের নিম্নোক্ত শর্তগুলো মেনে চলুন –ফোন সবসময় চালু রাখুনগুগল একাউন্টে সাইন ইন থাকুনমোবাইল ডাটা বা Wi Fi এর সাথে কানেক্টেড থাকুনগুগল প্লে তে ভিজিবল থাকুনআপনার ফোনের লোকেশন সার্ভিস অন্য রাখুন এবংআপনার ফোনে Find My Device অপশনটি চালু রাখুনআপনার ফোনে যদি 2 step verification চালু থাকে তাহলে ব্যাক আপ ফোন সঙ্গে রাখুন।  ছবিঃ সংগৃহীত

ফেক আইডি’র ক্ষেত্রে করনীয়
→ ডি এস এ

কোন একাউন্টের ব্যাপারে আপনি যদি নিশ্চিত হন তাহলে সেই একাউন্টটি আপনি রিপোর্ট করতে পারেন। ফেসবুকের নিজস্ব রিপোর্ট প্রক্রিয়া আছে। সেখানে গিয়ে ফেক আইডি’র রিপোর্ট করলে ফেসবুক অথরিটি সেই একাউন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে। ফেসবুকের ফেক আই ডি রিপোর্ট করার নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুন। যে প্রোফাইলটি আপনি ফেক হিসেবে চিহ্নিত করেছেন তার কভার ফটোর নিচে থাকা [...] এই বাটনটিতে ক্লিক করুন। এরপর Find Support or Report Profile সিলেক্ট করুন।বেশ কিছু অপশনসহ একটি নতুন উইন্ডো আসবে। সেখান থেকে আপনার পছন্দের অপশন সিলেক্ট করে Next বাটনে ক্লিক করুন।এরপর আপনি একটি কনফার্মেশন পাবেন যেখানে লেখা থাকবে যে আপনি সফলভাবে একাউন্টটিকে রিপোর্ট করেছেন। ফেসবুকে এ ধরণের রিপোর্টিং ফেসবুকে কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডের বিরোধী হিসেবে গণ্য করা হয় তবু একাধিক আকাউন্ট থেকে কোন আইডি বারবার রিপোর্ট করা হলে ঐ আইডিটি ফেসবুক থেকে ডিলিট করে দেয়া হয়। রিপোর্ট করা ছাড়াও আপনি ফেক আইডি থেকে বাঁচতে আইডি টি ব্লক করতে পারেন কিংবা ঐ ব্যক্তি থেকে আপনার সব পোস্ট হাইড করে রাখতে পারেন।ছবিঃ সংগৃহীত

অনলাইন শপিং এ প্রতারণা এড়াতে করণীয়
→ ডি এস এ

অনলাইনের শপিং এই সময়ের অন্যতম একটি ট্রেন্ড। মার্কেটে গিয়ে শপিং করার পাশাপশি অনলাইন শপিংও আজকাল জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। কিন্তু এত বড় সুবিধার আড়ালে রয়েছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী যারা অনলাইন ব্যবসার নামে অন্যের টাকা আত্নসাত করে।ফেইসবুকে অসংখ্য অনলাইন শপিং পেইজ রয়েছে, যেগুলো নানা রকমের চটকদার বিজ্ঞাপন দিয়ে লোকজনকে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করে থাকে। এর মধ্যে কিছু পেইজ পাওয়া যায় যেগুলো কখনো কখনো এক ধরণের প্রোডাক্ট দেখিয়ে অন্য ধরনের প্রোডাক্ট বা নিম্নমানের প্রোডাক্ট ডেলিভারি দিয়ে থাকে। আবার, কিছু কিছু পেইজ পাওয়া যায় যেগুলো প্রোডাক্ট অর্ডারের জন্য অগ্রীম মূল্য পরিশোধ করার পরও কোন প্রোডাক্টই ডেলিভারি দেয় না। এক্ষেত্রে, আপনি যদি তাদের চ্যালেঞ্জ করেন তারা আপনার নম্বর বা একাউন্টটি ব্লক করে দিবে। এ ধরনের পেইজগুলো সাধারনত চালু হবার কিছুদিনের মধ্যেই অসংখ্য মানুষের নিকট হতে বিভিন্ন পরিমানের টাকা হাতিয়ে নিয়ে অ্যাকাউন্টটি হঠাৎ করে ডিএকটিভেট করে দেয়।করণীয়·         সুপরিচিত বা সুপ্রতিষ্ঠিত অনলাইন শপ ছাড়া অন্য কোন অনলাইন শপ থেকে কেনাকাটার ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন। এক্ষেত্রে তাদের কাস্টমার রিভিউগুলো ভালভাবে পর্যবেক্ষণ করে নিতে পারেন।·         প্রতারণার শিকার হলে বিলম্ব না করে পুলিশকে অবগত করুন।ছবিঃ সংগৃহীত

ফেক আই ডি দিয়ে হ্যারাজমেন্টের শিকার হলে কি করবেন
→ ডি এস এ

ফেসবুকে ফেক আই ডি থেকে হ্যারাজমেন্টের শিকার হয়ে থাকেন। সাধারণত কোন ব্যক্তি নিজের পরিচয় গোপন রেখে এ ধরণের অপরাধ করে থাকেন। এটি এক ধরণের সাইবার ক্রাইম। অবশ্য শুধু ফেক আই ডি নয় অরিজিনাল আইডি ব্যবহার করেও অনেকে এ অপরাধ করে। আপনি যদি এ ধরণের কোন হ্যারাজমেন্টের শিকার হোন তাহলে সেই একাউন্টটি রিপোর্ট করতে পারেন।ফেসবুকের নিজস্ব রিপোর্ট প্রক্রিয়া আছে। সেখানে গিয়ে ফেক আইডি’র রিপোর্ট করলে ফেসবুক অথরিটি সেই একাউন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে। ফেসবুকের ফেক আই ডি রিপোর্ট করার নিচের পদ্ধতি অনুসরণ করুন। ·        যে প্রোফাইলটি আপনি ফেক হিসেবে চিহ্নিত করেছেন তার কভার ফটোর নিচে থাকা [...] এই বাটনটিতে ক্লিক করুন। এরপর Find Support or Report Profile সিলেক্ট করুন।·        বেশ কিছু অপশনসহ একটি নতুন উইন্ডো আসবে। সেখান থেকে আপনার পছন্দের অপশন সিলেক্ট করে Next বাটনে ক্লিক করুন।·    এরপর আপনি একটি কনফার্মেশন পাবেন যেখানে লেখা থাকবে যে আপনি সফলভাবে একাউন্টটিকে রিপোর্ট করেছেন। ফেসবুকে এ ধরণের রিপোর্টিং ফেসবুকে কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডের বিরোধী হিসেবে গণ্য করা হয় তবু একাধিক আকাউন্ট থেকে কোন আইডি বারবার রিপোর্ট করা হলে ঐ আইডিটি ফেসবুক থেকে ডিলিট করে দেয়া হয়। রিপোর্ট করা ছাড়াও আপনি ফেক আইডি থেকে বাঁচতে আইডি টি ব্লক করতে পারেন কিংবা ঐ ব্যক্তি থেকে আপনার সব পোস্ট হাইড করে রাখতে পারেন। ছবিঃ সংগৃহীত

হেল্প ডেস্ক