ক্রিটিকাল ইন্সফ্রাসটাকচারের জন্য

সাইবার সিকিউরিটি » ক্রিটিকাল ইন্সফ্রাসটাকচারের জন্য
ই ইউ ডি (এন্ড ইউজার ডিভাইস) সিকিউরিটি
→ ডি এস এ

আপনি যে ডিভাইস ব্যবহার করছেন এবং আপনার প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা এ দু’য়ের সাথে মিল রেখে এই নির্দেশনা কাজে লাগাবেন। যদিও কোন কোন নির্দেশনা সব ধরণের ডিভাইসের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। কিছু পরামর্শঅধিকাংশ ক্ষেত্রে আপনার কাজের ভিভাইসটি আপনার প্রতিষ্ঠানের সিস্টেম এডমিনিস্ট্রেটর কনফিগার করে থাকেন। এই সেটিংস পরিবর্তন করলে আপনি আপনার এবং আপনার প্রতিষ্ঠানের তথ্যকে ঝুঁকির মুখে ফেলতে পারেন। আপনার কোন সেটিংস বুঝতে সমস্যা হলে আপনার প্রতিষ্ঠানের আইটি সাপোর্টের সাথে কথা বলুন।আপনার কাজের যন্ত্রটি খুবই মূল্যবান এবং তথ্য চোরের কাছেও খুব লোভের। তাই তথ্য চুরি যাওয়া রোধে সতর্ক থাকুন। নিজে থেকে কোন রিস্ক নেবেন না। কোন ইনসিকিউরড যায়গায় ডিভাইসটি ফেলে আসবেন না বা হারিয়ে ফেলবেন না। সম্ভব হলে কাজ শেষে ডিভাইসটি লক করে রাখুন। ডিভাইস হারিয়ে গেলে বা চুরি হলে অতি দ্রুত আপনার আই টি সাপোর্টকে অবহিত করুন। যত দ্রুত আপনি আপনার আইটি কর্মীকে আপনার ডিভাইসের হারিয়ে যাওয়ার কথা বলবেন তত দ্রুত আপনার তথ্য রক্ষা পাবে।ফিজিক্যাল কানেকশনঅফিস অনুমোদন করে কেবল এমন ডিভাইসই অফিসে ব্যবহার করা উচিৎ। এবং নির্ভরযোগ্য পাওয়ার পাওয়ার এডাপ্টার ও ক্যাবল দিয়ে আপনার ডিভাইস চার্জ দিন। অনুমতি না নিয়ে যে কোন কম্পিউটারে ডিভাইস কানেক্ট করবেন না। এমনকি USB, HDMI, Firewire কানেক্ট করার সময়ও আপনার আই টি হেল্পডেস্কের সাথে কথা বলে নিন। কানেকশান ব্রিজ হিসেবে কাজ করতে পারে এমন কোন কিছুর সাথে ডিভাইস কানেক্ট করার আগে অবশ্যই আইটি’র এপ্রুভাল নিন।পাসওয়ার্ডকোন কারণেই আপনার পাসওয়ার্ড আপনার আই টি সাপোর্ট স্টাফ, ম্যানেজার অথবা কোন কলিগ কারও সাথে শেয়ার করা উচিৎ নয়। তা সে ইমেইলে হোক বা ইনবক্সে হোক। আপনি পাসওয়ার্ড নিজে মনে রাখার জন্য লিখে রাখতে পারেন, কিন্তু সেটা অবশ্যই কোন নিরাপদ স্থানে রাখতে হবে। যেমন ধরুন, আপনি পাসওয়ার্ডটি একটি কাগজে লিখে সেটা একটা খামের মধ্যে ঢুকিয়ে কোন ড্রয়ারে লক করে রেখে দিলে এটি আর কেউ জানতে পারবেনা। মনে রাখবেন, কোন ভাবেই পাসওয়ার্ড কোন কপি আপনার ডিভাইসে না থাকে। আপনি কি ধরণের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন সে সম্পর্কে আপনার অফিসের গাইডলাইন থাকতে তবে মুল শর্ত হচ্ছে এটা যেন কেউ অনুমান করে বের করতে না পারেন এমন শক্তিশালী পাসওয়ার্ড সেট করুন।দেশের বাইরে গেলেঅফিসের প্রয়োজনে আপনাকে মাঝে মধ্যে দেশের বাইরে যেতে হতে পারে। এসময় আপনার ডিভাইস ব্যবহারের ক্ষেত্রে একটু বেশিই সতর্ক থাকতে হবে। ডিভাইসটি এবং ডিভাইসের কোন তথ্য যাতে চুরি না যায় এজন্য প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।যদি কিছু ঘটে·         অস্বভাবিক কোন কিছু ঘটলে বা কোন বিপদের আশঙ্কা দেখলে দ্রুত পদক্ষেপ নিন।·         কেউ আপনার পাসওয়ার্ড জেনে গেছে এমন সন্দেহ হওয়া মাত্র পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। এক্ষেত্রে আপনার ডিভাইস কাছে না থাকলে আইটি হেল্পডেস্ককের সহায়তা নিন।·         আপনি পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে আইটি হেল্পডেস্ককে জানান, তারা প্রথমে আই পরিচিতি যাচাই করে পাসওয়ার্ড পরিবর্তনে সাহায্য করতে পারবে।·         আপনার ব্যবহৃত ডিভাইসটি ঠিকমত কাজ না করলে বা ব্যাটারি লাইফ শেষ হয়ে গেলে আইটি সাপোর্টকে জানান।·         সমস্যায় পরলে বাইরের কোন রিপেয়ার শপেই প্রথমে না গিয়ে আইটি সাপোর্টের পরামর্শ গ্রহণ করুন। ·         কেউ আপনার ডিভাইসটি টেম্পারিং করেছে (অর্থাৎ ডিভাইসের ভেতরের যন্ত্রাংশ পরিবর্তন করেছে)·         এমন সন্দেহ হলে ডিভাইসটি ব্যবহার করা বন্ধ করে দিন এবং আপনার আইটি কনসার্নকে জানান।  আপনার ডিভাইস আপনার কাছে যতটা মূল্যবান সাইবার ক্রিমিনালদের কাছে ততটাই মূল্যবান। তাই এর সুরক্ষার জন্য আপনাকে একটু দায়িত্ববান তো হতেই হবে।  ছবিঃ সংগৃহীত 

হেল্প ডেস্ক